ঢাকা    ২২শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৮ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ঢাকায় বিক্ষোভের ডাক: যে কারণে ‘মাঠে নামছে’ ইসলামী আন্দোলন

প্রকাশিত: ৯:৩৫ অপরাহ্ণ, জুন ৩, ২০২১

ঢাকায় বিক্ষোভের ডাক: যে কারণে ‘মাঠে নামছে’ ইসলামী আন্দোলন

নজর২৪, ঢাকা- বাংলাদেশের পাসপোর্ট থেকে ‘একসেপ্ট ইসরায়েল’ শব্দটি বাদ দেয়ার প্রতিবাদে মাঠে নামার ঘোষণা ঘোষণা দিয়েছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ।

 

আগামী শনিবার বিকেল ৩টায় বায়তুল মোকাররম উত্তর গেটে বিক্ষোভ সমাবেশ কর্মসূচি পালন করার ঘোষণা দেয় দলটি।

 

বৃহস্পতিবার ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর প্রেসিডিয়াম সদস্য প্রিন্সিপাল মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল-মাদানী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

 

আরও পড়ুন-

অবশেষে নতুন কমিটি ‘চূড়ান্ত’ করলেন বাবুনগরী, দায়িত্বে থাকবেন শফীর ছেলে

এই বাজেট গাঁজাখুরি: রুমিন ফারহানা

বাজেট নিয়ে চক্রান্ত করলে দাঁতভাঙা জবাব: যুবলীগ

 

এর আগে পাসপোর্ট থেকে ‘একসেপ্ট ইসরায়েল’ শব্দ দুটি বাদ দেওয়া, কার্যত ইসরায়েলকে রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া বলে মন্তব্য করে সরকারের এই সিদ্ধান্তে বিস্মিত ও ক্ষুব্ধ বলে জানিয়েছেন সংগঠনটির আমির ও চরমোনাইর পীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম।

 

পাসপোর্ট থেকে ‘একসেপ্ট ইসরায়েল’ শব্দটি বাদ দেয়ার বিষয়ে রোববার এক সংবাদ সম্মেলনে চরমোনাই পীর বলেন, ‘ফিলিস্তিনে ইসরায়েলি ব/র্বর/তার বিরুদ্ধে যখন গোটা বিশ্বের মানুষ সোচ্চার এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাজনীতিতেও যখন প্রথাগত ইসরায়েলি পক্ষপাতের বিরুদ্ধে

 

নতুন প্রজন্মের রাজনৈতিক নেতৃত্ব জোরালো প্রতিবাদ গড়ে তুলেছে, তখন বিস্ময়ের সঙ্গে লক্ষ করলাম, বাংলাদেশের পাসপোর্ট থেকে ৫০ বছরের ঐতিহ্য ছুড়ে ফেলে একসেপ্ট ইসরায়েল শব্দদ্বয় বাদ দেয়া হয়েছে। এই সংবাদে আমরা বিস্মিত এবং ক্ষুব্ধ।’

 

চরমোনাই পীর বলেন, ‘পাসপোর্ট থেকে এই শব্দ দুটি বাদ দেয়া কার্যত ইসরায়েলকে স্বীকৃতি দেয়া। আমরা বাস্তবতা থেকে জানি যে, তাইওয়ানকে বাংলাদেশ রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি না দেয়া সত্ত্বেও একসেপ্ট তাইওয়ান শব্দ পাসপোর্টে উল্লেখ না থাকার কারণে তৃতীয় কোনো দেশ

 

থেকে তাইওয়ানের ভিসা নেয়া যায় এবং তাইওয়ানের সঙ্গে লেনদেন করা যায়। একইভাবে ইসরায়েলের ক্ষেত্রেও এই শব্দদ্বয় তুলে দিয়ে কার্যত ইসরায়েলের সঙ্গে সংযোগ স্থাপন করার ব্যবস্থা খোলা হচ্ছে।’

 

আরও পড়ুন-

প্রতিমাসে ৫ হাজার টাকা ভাতার দাবি রোহিঙ্গাদের: ভাসানচরে বিক্ষোভ, ভাঙচুর

বাবা-মায়ের স্বপ্ন পূরণে হেলিকপ্টারে বউ আনলেন প্রবাসী

গোপন তথ্য ফাঁস, প্রতিদিন বাবুনগরীকে দিয়ে আসতেন ১০ লাখ টাকা

 

মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম বলেন, ‘অশুভ জায়নবাদের কাজের ধারা মাথায় রাখলে এই সত্য বুঝতে কষ্ট হওয়ার কথা নয়। একই সঙ্গে এই ইস্যুতে ইসরায়েলের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ভেরিফাইড পেজ থেকে উচ্ছ্বাস প্রকাশ ও অধিকাংশ আন্তর্জাতিক মিডিয়া এটাকে বাংলাদেশ কর্তৃক ইসরায়েলে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়া হিসেবে সংবাদ পরিবেশন আমাদের আশংকাকেই সত্যায়ন করে।’

 

মালয়েশিয়ার উদাহরণ দিয়ে তিনি বলেন, ‘পাসপোর্টের আন্তর্জাতিক মান রক্ষায় একসেপ্ট ইসরায়েল শব্দদ্বয় কোনো বাধা নয়। এর পক্ষে অনেক যুক্তি থাকলেও সহজ অর্থে কেবল এতটুকু উল্লেখই যথেষ্ট হবে যে, এই শব্দদ্বয়সহই মালয়েশিয়ার পাসপোর্ট বিশ্বের ১৯তম শক্তিশালী পাসপোর্ট।’

 

পরে ৫ জুন বিকেল ৩টায় বায়তুল মোকাররম উত্তর গেটে বিক্ষোভ মিছিল করার ঘোষণা দেয় ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ।

 

এ সম্পর্কিত আগের সংবাদ পড়ুন-

 

আলেমদের দরদ নিয়ে ইসলাম প্রচার করতে হবে: পীর সাহেব চরমোনাই

 

নজর২৪, ঢাকা- ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর আমির মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, ওলামায়ে কেরামকে উত্তম আখলাক ও দরদ নিয়ে ইসলাম প্রচারে কাজ করতে হবে। দ্বীন প্রতিষ্ঠার জন্য ওলামায়ে কেরামকে সর্বত্র সততা ও তাকওয়ার সাথে নেতৃত্ব দিতে হবে।

 

তিনি বলেন, রাষ্ট্রে আলেম সমাজের কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠায় যোগ্যতা, দক্ষতা ও দূরদর্শি করতে হবে। সকল দল ও সামাজিক সংগঠনকে বৃহত্তর স্বার্থে ইসলামের পক্ষে সম্পৃক্ত করার গুরুদায়িত্ব ওলামায়ে কেরামকে পালন করতে হবে।

 

মঙ্গলবার (১ জুন) বিকেলে পুরানা পল্টনস্থ একটি মিলনায়তনে জাতীয় ওলামা মাশায়েখ আইম্মা পরিষদ আয়োজিত পরিচিতি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

 

সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি আল্লামা নূরুল হুদা ফয়েজীর সভাপতিত্বে এবং সেক্রেটারী জেনারেল মাওলানা গাজী আতাউর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত পরিচিতি সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ইসলামী আন্দোলনের সিনিয়র নায়েবে আমীর মুফতী সৈয়দ ফয়জুল করীম শায়খে চরমোনাই।

 

এছাড়া আরও বক্তব্য রাখেন, ইসলামী আন্দোলনের মহাসচিব অধ্যক্ষ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ, সংগঠনের সহ-সভাপতি মুফতী ওমর ফারুক সন্ধিপী, ড. অধ্যাপক আফম খালিদ হোসেন, ড. মাওলানা বেলাল নূর আজিজী, মুফতী ফরিদ উদ্দিন আল মোবারক।

 

মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম শায়খে চরমোনাই বলেন, রাসূল সা. ও হযরত সাহাবায়ে কেরামের আখলাক থেকে সরে আসার কারণে আমাদের এই করুণ পরিণতি। তিনি সকলকে মেজাজে, মননে, আদবে, আখলাকে সর্বক্ষেত্রে নবী সা.-এর আদর্শের অনুসরণ ও অনুকরণের আহ্বান জানান।

 

আরও সংবাদ পড়ুন-

বিপদে আপদে সর্বাবস্থায় আল্লাহর উপর ভরসা করুন: চরমোনাই পীর