প্রিয়তমা তুমি একজন সাহসী নারী: পরীমণিকে বললেন রাজ

বিনোদন ডেস্ক- ‘আইসক্রিম’ সিনেমা দিয়ে ঢালিউডে অভিষেক শরিফুল রাজের। এরপর মুক্তি পেয়েছে ‘ন ডরাই’ এবং মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে ‘পরান’, ‘রক্তজবা’, ‘হাওয়া’ ও ‘গুনিন’।

সম্প্রতি শরিফুল রাজ আলোচনায় এসেছেন পরীমনিকে বিয়ে করে। এই দম্পতি জানিয়েছেন খুব শিগগির মা-বাবা হতে যাচ্ছেন তারা।

গত ১০ জানুয়ারি সুখবরটি নিশ্চিত করেন পরীমণি ও রাজ দু’জনেই। এখন পরীর গর্ভে বেড়ে উঠছে রাজের সন্তান। তাই প্রিয়তমা স্ত্রীর যত্ন একটু বেশিই নিচ্ছেন। রাজ জানিয়েছেন, মাতৃত্বের জন্য পরী বছর দেড়েকের বিরতি নেবেন।

এদিকে সন্তান ধারণের খবর জানানোর পর সোশ্যাল মিডিয়ায় পরীমণিকে নিয়ে আবেগময় পোস্ট দেন রাজ। সেখানে স্ত্রীকে প্রশংসায় ভাসান অভিনেতা। রাজের ভাষ্য, ‘তুমি একজন সাহসী নারী। যে চ্যাম্পিয়নের মতো ব্যথা সহ্য করেছো এবং আমি তোমার এই সাহসের প্রশংসা করি। আমাদের সন্তানকে সুন্দর পৃথিবীতে নিয়ে আসছো, এজন্য তোমাকে ধন্যবাদ প্রিয়তমা স্ত্রী।’

রাজ ও পরীমণি বিয়ে করেছেন গত বছরের ১৭ অক্টোবর। তবে বিয়ের কোনো ছবি এখনো প্রকাশ করেননি তারা। এ বিষয়ে জানতে চাইলে রাজ বলেন, ‘আমাদের বিয়েটা একেবারে ঘরোয়া আয়োজনে হয়েছে। তাই সেসব ছবি প্রকাশ করতে চাচ্ছি না। আমাদের সন্তান পৃথিবীতে আসার পর আমরা বড় অনুষ্ঠান করব। তখন ইচ্ছেমতো ছবি তুলে নেবো।’

ক্যারিয়ারের ব্যস্ততম সময়ে পরীমণি বিয়ে ও সন্তান গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এজন্য তাকে ভীষণ সাহসী ও শক্তিশালী নারী হিসেবেই মনে করেন রাজ। স্ত্রী ও অনাগত সন্তানের প্রতি ভালোবাসা প্রকাশ করে এ অভিনেতা ফেসবুকে লেখেন, “যদিও আমার একটি হৃদয়, মনে হচ্ছে সেটা এখন তোমাদের দু’জনের মধ্যে সমানভাবে বিভক্ত। ধন্যবাদ প্রিয় নারী আমাদের জীবনে এমন একটি আরাধ্য শিশু আনার জন্য। আমার জন্য এটা তোমার সেরা উপহার। এজন্য তোমার প্রতি আজীবন কৃতজ্ঞ থাকব। আমি সবসময় তোমার পাশে থাকব। একজন বাবা হতে পেরে এবং তোমাকে নিয়ে আমি গর্বিত।’’

উল্লেখ্য, গত বছরের অক্টোবরে গিয়াসউদ্দিন সেলিমের পরিচালনায় ‘গুণিন’ সিনেমায় জুটি বেঁধে কাজ করেন পরীমণি ও রাজ। সেই কাজের সুবাদেই প্রেমের সূচনা। প্রথম দেখাতেই রাজের প্রেমে পড়ে গিয়েছিলেন পরী। এরপর ৭ দিনের মাথায় তারা বিয়ে করে নেন। বর্তমানে রাজধানীর একটি আবাসিক এলাকায় আনন্দে সংসার করছেন।

পরীমনি জানান, “আমাদের বিয়ের চার মাস হতে চলেছে। সপ্তাহ তিনেক আগে আমরা জানতে পারি যে আমি মা হতে যাচ্ছি। প্রথম মাস চলছে।”

চিকিৎসকের পরামর্শে পূর্ণ বিশ্রামে থাকবেন পরী মনি। তাই আপাতত শুটিং বন্ধ পুরোপুরি। “আগামী দেড় বছর একদম ছুটি। বাচ্চাকে সুস্থভাবে পৃথিবীতে আনতে চাই। প্রপারলি একটা সুস্থ বাচ্চা জন্ম দিতে চাই।”

বর্তমানে পরীর হাতে রয়েছে, রাশিদ পলাশের ‘প্রীতিলতা’, চয়নিকা চৌধুরীর ‘কাগজের ফুল’, অরণ্য আনোয়ারের ‘মা’ চলচ্চিত্রগুলো। এ বছরই মুক্তি পাবার কথা রয়েছে পরী অভিনীত ‘মুখোশ’, ‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’ ছবিগুলো। এর মধ্যে ‘প্রীতিলতা’ চলচ্চিত্রটির শুটিংই কেবল বাকি রয়েছে।

আরও পড়ুন