ঢাকা    ৭ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২২শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ



এই বেয়া’দব মহিলা তো নিজেই সংবেদনশীল না: তসলিমাকে প্রিন্স মাহমুদ

প্রকাশিত: ৮:৪৯ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ২৩, ২০২১

এই বেয়া’দব মহিলা তো নিজেই সংবেদনশীল না: তসলিমাকে প্রিন্স মাহমুদ

বিনোদন ডেস্ক- কান চলচ্চিত্র উৎসবে অংশ নেওয়া বাংলাদেশের আলোচিত সিনেমা ‘রেহানা মরিয়ম নূর’। আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ সাদের এই সিনেমাটি ইতিমধ্যেই এশিয়া প্যাসিফিক স্ক্রিন অ্যাওয়ার্ডস (অ্যাপসা) জিতেছে। আর সিনেমায় অভিনয়ের জন্য সেরা অভিনেত্রীর স্বীকৃতি পেয়েছেন আজমেরী হক বাঁধন। বিভিন্ন দেশ ঘুরে দেশের প্রেক্ষাগৃহেও মুক্তি পেয়েছে সিনেমাটি। দর্শকদের ভূয়সী প্রশংসাও কুড়াচ্ছে।

 

তবে এর মধ্যে বাধ সাধল আলোচিত লেখিকা তসলিমা নাসরিন। সিনেমাটি নিয়ে তিনি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে সমালোচনা করেছেন। অবশ্য তার এই সমালোচনার ‘কড়া’ জবাব দিয়েছেন গুণী গীতিকার-সুরকার প্রিন্স মাহমুদ। বলেছেন, ‘এই নারসি সিস্ট বেয়া দব মহিলা তো নিজেই সংবেদনশীল না।’

 

ফেসবুক পোস্টে প্রিন্স মাহমুদ লিখেছেন, ‘আলোচিত ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ সিনেমা নিয়ে এবার সমালোচনা করছে লেখিকা তসলিমা নাসরিন। লিখছে রেহানাকে তার সংবেদনশীল, সৎ বা উদার কোনো মানুষ মনে হয় নাই। হাসবো না কাঁদবো বুঝতে পারছি না। এই নারসি সিস্ট বেয়া দব মহিলা তো নিজেই সংবেদনশীল না।

 

‘আবরার এমনি এমনি মরে গেছে, হ ত্যা ইচ্ছাকৃত নয়’—বলার পর আমি তাকে দীর্ঘদিন একা থাকার জন্য সে অসুস্থ ও ট্রিটমেন্ট নেয়ার পরামর্শ দিলে সে আমাকে ডিলিট করে দেয়। যে নিজের সমালোচনা সহ্য করতে পারে না সে মুক্তমনা, উদার হয় কেমন করে?’

 

প্রিন্স মাহমুদ আরও লিখেছেন, ‘যে লেখা সামান্য বোঝে, সেও জানে যে তসলিমার লেখা অত্যন্ত নিম্নমানের এবং একটা কবিতা লিখেছি একটু দেখুন না দেখুন না করে বড় বড় লেখকদের পা চেটে একটা জায়গা করে নিয়েছিল মাত্র। আর ডাক্তার এবং মোটামুটি সাদা চামড়ার নাদুস-নুদুস একটা কিছু ছিল বলে বড় লেখকদের সহযোগী হিসেবে জায়গা পেয়ে যায়। দু’একটা নিম্নমানের বইটই লিখলো। অশিক্ষিত মৌলবাদীরাও হৈ হৈ করে উঠল। দেশের বাইরে একটা পার্মান্যান্ট ব্যবস্থা হয়ে গেল। ওরে আর পায় কে?’

 

প্রশ্ন ছুড়ে দিয়ে ‘বাংলাদেশ’ খ্যাত গীতিকার প্রিন্স মাহমুদ লিখেন, ‘আচ্ছা, ও (তসলিমা নাসরিন) সিনেমার কী বোঝে? এই বয়সে অতৃপ্তিতে ভুগছে। কিছু বলদ ফ্যান-ট্যান জুটিয়ে সহমত দিদি, সহমত দিদি শুনতে শুনতে দিন দিন আরো অ্যাবনরমাল হয়ে যাচ্ছে। মুক্তমনা শব্দের পেছন মেরে ছেড়েছে ফাজিলটা…।’