সর্বশেষ সংবাদ

ভারত আমাদের বন্ধু, আমরা পরস্পরকে সহযোগিতা করছি: শেখ হাসিনা

চারদিনের রাষ্ট্রীয় সফরে ভারতে অবস্থান করছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মঙ্গলবার (৬ সেপ্টেম্বর) দেশটির রাজধানী নয়াদিল্লির রাষ্ট্রপতি ভবনে তাকে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়।

পরে সেখানেই সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘ভারত আমাদের বন্ধু। যখনই ভারতে আসি, এটা আমাদের জন্য আনন্দের। আমাদের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রয়েছে এবং আমরা পরস্পরকে সহযোগিতা করে চলেছি।’ মঙ্গলবার এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় বার্তাসংস্থা এএনআই।

গার্ড অব অনার গ্রহণ শেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমাদের প্রধান লক্ষ্য হলো- সামগ্রিকভাবে আমাদের জনগণের উন্নয়ন, দারিদ্র্য বিমোচন এবং অর্থনীতির উন্নয়ন। এই ইস্যুতে আমি মনে করি আমাদের ২টি দেশ একসঙ্গে কাজ করছে। এতে শুধু ভারত ও বাংলাদেশের মানুষই নয়, সমগ্র দক্ষিণ এশিয়ার মানুষ উন্নত জীবন পেতে পারে। এটাই আমাদের মূল লক্ষ্য।’

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে অনুষ্ঠেয় বৈঠক সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘আমি আশা করছি, আমাদের আলোচনা অত্যন্ত ফলপ্রসূ হবে। সেই সঙ্গে আমাদের মূল লক্ষ্য—অর্থনৈতিক উন্নয়ন এবং জনগণের মৌলিক চাহিদা পূরণে আমরা সক্ষম হবো। বন্ধুত্বের মাধ্যমে আপনি যেকোনো সমস্যার সমাধান করতে পারবেন। আমরা সবসময় সেটাই করি।’

এরপর হিন্দিতে তিনি বলেন, ‘হাম হামেশা আভারি হু ভারত কি ওর। হামারা দেশ যাব সোয়াধিনতা অর্জন কিয়া, লিবারেশন ওয়ার হুয়া, ইহাকি লোগোনে যেয়সা হামারা সাথ থি, সাপোর্ট কি, উনকা জিতনা কন্ট্রিবিউশন হ্যায় হামেশা ইসকো সোয়াগাত কারতি হু। হাম রিয়েলি আভারি হু। মেরে ওর সে ভারতবাসী কো হামারা শুভেচ্ছা, স্বাগতম।’

কথাগুলো আবার বাংলায় বলেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি একটু চেষ্টা করলাম হিন্দিতে বলতে। ৬ বছর ছিলাম এখানে, একটু একটু শিখেছি। সেখান থেকে একটু বললাম যে, আমার তরফ থেকে ভারতবাসীকে আবার শুভেচ্ছা জানাচ্ছি, শুভকামনা জানাচ্ছি। আর সেই সাথে সাথে ৭১ সালে ভারতবাসী যেভাবে আমাদের পাশে দাঁড়িয়েছিল এবং সবক্ষেত্রে আমরা তাদের সহযোগিতা পেয়েছি, সেজন্য সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ বাংলাদেশের পক্ষ থেকে, বাংলাদেশের জনগণের পক্ষ থেকে, আমার পক্ষ থেকে, আমার পরিবারের পক্ষ থেকে। সবাইকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।’

৪ দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে গতকাল সোমবার সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারতের নয়াদিল্লি পৌঁছান। সেখানে তাকে লাল গালিচা সংবর্ধনা দেওয়া হয়। ভিভিআইপি বিমানবন্দর পালাম এয়ার ফোর্স স্টেশনে নামার পর ভারতের রেল প্রতিমন্ত্রী দর্শনা ভি জারদোশ এবং ভারতে বাংলাদেশের হাইকমিশনার মো. ইমরান তাকে অভ্যর্থনা জানান।

৪ দিনের এই রাষ্ট্রীয় সফরে বাণিজ্য, জ্বালানি, যোগাযোগ ও নদীর পানি বণ্টনের ক্ষেত্রে সহযোগিতা বৃদ্ধি এবং আঞ্চলিক স্থিতিশীলতা নিয়ে আলোচনার হতে পারে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ভারত সফর করবেন। তার ভ্রমণসূচি অনুযায়ী, আজ তার সঙ্গে বৈঠক অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির। ভারতের রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মুর সঙ্গেও আজ সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন তিনি।

আরও পড়ুন

তখন আমি এত পরিপক্ব ছিলাম না: তাসনিয়া ফারিণ

ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী তাসনিয়া ফারিণ। বিনোদন জগতে অন্তর্জালের কল্যাণে এরই মধ্যে ব্যাপক পরিচিতি পেয়েছেন ফারিণ। মডেলিং দিয়ে শুরু করেন তিনি। পরে টিভি নাটকে...

যুক্তরাষ্ট্রে গিয়ে নতুন প্রেমের কথা স্বীকার করলেন সোহানা সাবা

লম্বা সময় ধরে সিঙ্গেল মাদার হিসেবেই সময় পার করছেন দুই পর্দার দর্শকপ্রিয় অভিনেত্রী সোহানা সাবা। ব্যক্তিগত জীবনে ভালোবেসে নির্মাতা মুরাদ পারভেজের সঙ্গে ঘর বেঁধেছিলেন...

সেরা পঠিত