সর্বশেষ সংবাদ

পরিচালকরা আমার সঙ্গে কাজ করতে আগ্রহী: রুকাইয়া জাহান চমক

শোবিজে আলোচনার কেন্দ্র বিন্দুতে রয়েছেন উদীয়মান অভিনেত্রী রুকাইয়া জাহান চমক। গত ২১ আগস্ট ডিরেক্টরস গিল্ড এ অভিনেত্রীকে ৩ মাসের জন্য নিষিদ্ধ ঘোষণা করে।

ওইদিন ‘নিষিদ্ধ’ ঘোষণার পর নিজের অবস্থান পরিষ্কার করেন চমক। কিন্তু তার একদিন পর একটি ভিডিও বার্তা দিয়েছেন এই অভিনেত্রী। মঙ্গলবার (২২ আগস্ট) ভিডিওটি নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুকে পোস্ট করেন চমক।

ভিডিওর শুরুতে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে চমক বলেন, ‘রুকাইয়া জাহান চমককে ৩ মাসের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় এ খবর ভেসে বেড়াচ্ছে। এজন্য পারিবারিক ও সামাজিকভাবে আমাকে হেয়প্রতিপন্ন হতে হচ্ছে। পরিবারের দায়বদ্ধতা থেকে এ বিষয়ে আমি কথা বলছি।’

‘গত ৪ আগস্ট শুটিং সেটে যে ঘটনা ঘটেছিল, তার সুন্দর একটা সমাধান হয়ে গেছে। টেলিভিশন প্রোগ্রাম প্রডিউসারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (টেলিপ্যাব) ও অভিনয় শিল্পী সংঘ এর সমাধান দিয়েছে। আর সেই সমাধান আমরা সবাই মেনেও নিয়েছি। এটা মেনে নিয়ে সবাই আবার কাজও শুরু করেছি। কিন্তু সিনিয়রদের একটি সিদ্ধান্তকে উপেক্ষা করে আকস্মিকভাবে সংবাদ সম্মেলন ডাকা হয় এবং আন্ত সংগঠনে বিশৃঙ্খলা তৈরি করা মোটেও কাম্য নয়।’ বলেন চমক।

ডিরেক্টরস গিল্ডের সিদ্ধান্তকে সংগঠনটির অনেক সদস্য সমর্থন করেন না। বিষয়টি উল্লেখ করে চমক বলেন, ‘আমি একজন অভিনয়শিল্পী। আমার একটি পরিবার আছে। নিষিদ্ধ হওয়ার তথ্য ছড়ানোর কারণে আমার পরিবার হেয়প্রতিপন্ন হয়েছে। অথচ এটা তাদের আকস্মিক সিদ্ধান্ত। আমি ২০-৩০ জন নাট্যনির্মাতার সঙ্গে বসেছি, তারাও ডিরেক্টরস গিল্ডের সদস্য। আমাকে নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্তকে তা সমর্থন করেন না। বরং তারা আমার সঙ্গে কাজ করতে আগ্রহী। উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে কাউকে এভাবে হেয় করা সত্যি খুব দুঃখজনক।’

‘এত খারাপ খবরের মধ্যে আনন্দের বিষয় হলো, আমার পরিবার (ইন্ডাস্ট্রি) আমার পাশে আছে। তারা বলছেন, চমককে যেসব আদেশ-নিষেধ, শাস্তি দেওয়া হয়েছে তার সবকিছু সে মেনে নিয়েছে। সমস্ত কিছুর সমাধান হওয়ার পরও যদি কেউ বিষয়টি বাড়ায়, তবে তা ব্যক্তিগত আক্রোশ থেকে করা হয়েছে, যা একদমই ঠিক না।’ বলেন চমক।

ডিরেক্টরস গিল্ডের নিষিদ্ধ করার এখতিয়ার নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন চমক। এ অভিনেত্রী বলেন, ‘আমাকে সাংগঠনিকভাবে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। কিন্তু সেই সংগঠনের সকল সদস্যদের মতামতের ভিত্তিতে করা হয়নি। আমি অভিনয়শিল্পী সঙ্গের সদস্য, ডিরেক্টরস গিল্ডের সদস্য নই। সুতরাং আমি যে গিল্ডের সদস্য না, তারা তো আমাকে নিষিদ্ধ করতে পারে না। অর্থাৎ আমি যে দেশের নাগরিক না, সে দেশের নাগরিকত্ব কেড়ে নেওয়ার তো প্রশ্নই উঠে না। অভিনয়শিল্পী সংঘ আমার পাশে আছে। এছাড়াও অন্যান্য সংগঠনগুলো আমাকে কাজ করে যেতে বলেছেন। সুতরাং নিষিদ্ধ হওয়ার বিষয়টি এখানে গুরুত্বহীন। আমি কাজ করছিলাম, এখনো করছি, ভবিষ্যতেও করব।’

পরিবার, আত্মীয়-স্বজন ও ভক্তদের উদ্দেশ্যে চমক বলেন, ‘আমার পরিবার, আত্মীয়-স্বজন ও ভক্তদের বলব, আমি আগেও ভালো ভালো কাজ করার চেষ্টা করেছি, এখনো করব। আপনাদের দোয়া সবসময় চাই, আপনাদের উৎসাহ আমাকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে।’

আরও পড়ুন

তখন আমি এত পরিপক্ব ছিলাম না: তাসনিয়া ফারিণ

ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী তাসনিয়া ফারিণ। বিনোদন জগতে অন্তর্জালের কল্যাণে এরই মধ্যে ব্যাপক পরিচিতি পেয়েছেন ফারিণ। মডেলিং দিয়ে শুরু করেন তিনি। পরে টিভি নাটকে...

দ্বিতীয় স্বামীর কাছে ফিরতে চাইছেন মাহিয়া মাহি?

অভিনেত্রী মাহিয়া মাহি বছর তিনেক আগে দ্বিতীয়বার বিয়ের মালা গলায় পরেছিলেন। ২০২১ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর গাজীপুরের রাকিব সরকারকে বিয়ে করেন তিনি। তাদের ঘরে ফারিশ...

সেরা পঠিত