সর্বশেষ সংবাদ

হিরো আলমকে গাড়ি উপহার দেওয়া সেই মখলিছুরের বিরুদ্ধে মামলা

আলোচিত কনটেন্ট ক্রিয়েটর আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলমকে গাড়ি উপহার দেওয়া হবিগঞ্জ জেলার চুনারুঘাট উপজেলার সেই এম মখলিছুর রহমানের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা হয়েছে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিভ্রান্তিকর তথ্য প্রচার ও পরিবারসহ হেয়প্রতিপন্ন করার অভিযোগে গত সোমবার সিলেটের সাইবার ট্রাইব্যুনালে মামলা করেন মোস্তাফিজুর রহমান মর্তুজ নামের এক ব্যক্তি।

মামলার বাদী মোস্তাফিজুর রহমান মর্তুজ হবিগঞ্জ সদর উপজেলার বনগাঁও গ্রামের তরাবত উল্লার ছেলে। অভিযুক্ত এম মখলিছুর রহমান চুনারুঘাট উপজেলার নরপতি গ্রামে মৃত আব্দুল জব্বারের ছেলে।

মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে বাদীপক্ষের আইনজীবী কানন আলম বলেন, ‘সিলেট সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতে মামলা দাখিল করা হয়। আদালত মামলা গ্রহণ করে হবিগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিল করার জন্য নির্দেশ প্রদান করেছেন।

এ বিষয়ে হবিগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম মর্তুজা জানান, ‘এখন পর্যন্ত আমার কাছে এ ধরনের কোনো মামলা আসেনি, আসলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

মামলায় এম মখলিছুর রহমান ছাড়া অন্য আসামিরা হলেন- হবিগঞ্জ সদর উপজেলার বনগাঁও গ্রামে আব্দুল কাদির মুন্সির ছেলে শাজাহান মুন্সি (৪৬), মৃত আব্দুস শহিদের ছেলে মো. সাহাব উদ্দিন মুন্সি, মো. সাহাব উদ্দিন মুন্সির ছেলে সাজু চৌধুরী, মৃত আব্দুল লতিফের ছেলে শাহানুর মুন্সি ও মৃত আব্দুল কাদির মুন্সির ছেলে শাহ জামাল মুন্সি।

মামলার বিবরণে জানা যায়, মো. মোস্তাফিজুর রহমান মর্তুজের মালিকানাধীন মেসার্স মুন্সি ব্রিক্স নামে একটি ইটভাটা রয়েছে। এর অর্ধেক মালিকানা বিক্রি করার জন্য শাজাহান মুন্সির সঙ্গে অ্যাফিডেভিটের মাধ্যমে একটি অঙ্গীকারনামা করা হয়। পরবর্তী সময় মূল্য পরিশোধে ব্যর্থ হলে শাজাহান মুন্সির ছোট ভাই শাহ জামাল মুন্সি নিজে দায়ভার গ্রহণ করে আরেকটি চুক্তি করেন এবং দুটি চেক প্রদান করেন।

পরে টাকা পরিশোধ না করে টালবাহানা করতে থাকেন। একপর্যায়ে টাকা পরিশোধ করা হবে না, বুঝতে পেরে আদালতে একটি মামলা দায়ের করা হয়। ১০ মে (বুধবার) আসামিদের প্ররোচনায় ফেসবুকে ভিডিও পোস্ট দেন এম. মখলিছুর রহমান। যা অন্য আসামিদের সহযোগিতায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এতে মামলার বাদী ও তার পরিবারকে বিরক্ত, অপমান ও হেয়প্রতিপন্ন করা হয়।

এ ব্যাপারে মোস্তাফিজুর রহমান মর্তুজ বলেন, ‘শাজাহান মুন্সি ও তার ভাইয়ের কাছে আমি টাকা পাই। যার প্রমাণাদি রয়েছে। কিন্তু টাকা পরিশোধ না করার জন্য মখলিছুর রহমানকে ভাড়া করে এনে তাকে দিয়ে আমাদের বিরুদ্ধে ফেসবুকে মানহানিকর ভিডিও পোস্ট করা হয়েছে।’

মামলা দায়েরের বিষয়টি শুনেছেন জানিয়ে এম. মখলিছুর রহমান বলেন, ‘আমি মামলায় ভীত নই। আমাকে আসামি করায় আমার ফেসবুকের ভিউ আরও বাড়বে। এম. মখলিছুর রহমানের ফেসবুকে দেওয়া সেই ভিডিওতে দেখা যায়, শাজাহান মুন্সি গায়ে কাফনের কাপড় জড়িয়ে মোস্তাফিজুর রহমান মর্তুজের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ করছেন।

আরও পড়ুন

পাঠকদের সঙ্গে সময় কাটাতে চাই: ভাবনা

ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী এবং মডেল আশনা হাবিব ভাবনা। বড় পর্দাতেও সরব উপস্থিতি রয়েছে তার। মডেলিং এবং অভিনয়ের পাশাপাশি লেখালেখি ও নাচেও বেশ পারদর্শী...

মির্জাপুরে বিনম্র শ্রদ্ধায় ভাষা শহীদদের স্মরণ

মো. সানোয়ার হোসেন, মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি: সারাদেশের মতো যথাযোগ্য মর্যাদার মধ্যদিয়ে টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে রাতের...

সেরা পঠিত